Back
Home » সংবাদ
মোদী ও ইমরানের হাত ধরে আজ উদ্বোধন কর্তারপুর করিডরের
Oneindia | 9th Nov, 2019 10:00 AM

বহুপ্রতিক্ষিত কর্তারপুর করিডরের উদ্বোধন হতে চলেছে আজ, শনিবার। ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে সংযোগকারী ৪.৭ কিলোমিটার লম্বা এই রাস্তা ধরে ভিসা ছাড়াই ভারতীয়রা কর্তারপুর সাহিব দর্শনে যেতে পারবেন। শনিবার পাঞ্জাবের গুরদাসপুরে এর উদ্বোধন করবেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আর পাকিস্তানের দিকে উদ্বোধন করবেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

এই কর্তারপুরের দরবার সাহিবেই তাঁর জীবনের শেষ ১৮ বছর কাটিয়েছিলেন গুরু নানক। এই কারণে শিখ তীর্থযাত্রীদের কাছে এর গুরুত্ব অন্য স্তরের। ভারতের তরফে ৫৫০ সদস্যের একটি জাঠা বা প্রতিনিধি দল শনিবার যাবে কর্তারপুরের দিকে। প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং, পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং, অভিনেতা-সাংসদ সানি দেওল, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হরদীপ পুরি, হরসিমরত কৌর বাদল রয়েছেন সে দলে। ইমরান খানের বিশেষ আমন্ত্রণে সেখানে যাচ্ছেন প্রাক্তন ক্রিকেটার তথা অমৃতসরের কংগ্রেস বিধায়ক নভজ্যোত সিং সিধুও।

এদিকে কথা দিয়েও কথা রাখল না পাকিস্তান। কর্তারপুর করিডরে প্রবেশ করতে শনিবারের তীর্থযাত্রীদের ২০ ডলার করে ফি দিতে হবে, শুক্রবার এমনটাই জানিয়ে দিল পাকিস্তান। শনিবার কর্তারপুর করিডরের উদ্বোধন, সেখানে যাওয়া সেদিনের তীর্থযাত্রীদেরও ফি দিতে হবে। এর আগে ১ নভেম্বর পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছিলেন উদ্বোধনের দিন ও গুরুজির ৫৫০তম জন্মবার্ষিকীতে তাঁদের কোনও ফি দিতে হবে না।

বহুদিন ধরেই পাকিস্তানের ধার্য করা ২০ আমেরিকান ডলারের সার্ভিস চার্জের আপত্তি জানিয়ে এসেছিল ভারত ও সাধারণ তীর্থযাত্রীরা। যদিও আপত্তি সত্ত্বেও সেই ফি কমায়নি পাকিস্তান সরকার। তবে ৯ নভেম্বর ও ১২ নভেম্বর জন্য ফি নেবে না বলে জানিয়েছিল ইসলামাবাদ। তবে উদ্বোধনের একদিন আগে অর্থৎ শুক্রবার পাকিস্তানের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয় যে ফি দিতে হবে তীর্থযাত্রীদের।

এর আগে পূণ্যার্থীদের কর্তারপুর করিডোর দিয়ে যেতে হলে পাসপোর্ট লাগবে না বলেও জানিয়েছিলেন পাক প্রধানমন্ত্রী। তবে বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের পক্ষ থেকে জানিয়ে দেওয়া হল যে ভারতীয় শিখ পুণ্যার্থিদের করিডর ব্যবহার করার জন্য পাসপোর্ট থাকা বাধ্যতামূলক। পাক সেনার মুখপাত্র মেজর জেনারেল আসিফ গফুর জানিয়েছেন এই কথা।